Breaking News
Home / স্থানীয় সংবাদ / চিতলমারীতে স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ করে লাপাত্তা আ’লীগ নেতা

চিতলমারীতে স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ করে লাপাত্তা আ’লীগ নেতা

চিতলমারী প্রতিনিধি
বাগেরহাটের চিতলমারীতে ষষ্ঠ শ্রেণীতে পড়ুয়া স্কুল ছাত্রীকে (১৩) ধর্ষণ করে চম্পট দিয়েছে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। গত রবিবার সকাল ১১টার দিকে উপজেলার পাঁচপাড়া গ্রামে এ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। ওইদিন রাতে ছাত্রীর মা বাদী হয়ে ননী গোপাল বিশ্বাস (৪৫) কে আসামি করে থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। ননী গোপাল বিশ্বাস চরবানিয়ারী ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য এবং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। ঘটনার পর তিনি গা ঢাকা দিয়েছেন। ননী পাঁচপাড়া গ্রামের রণজিৎ বিশ্বাসের ছেলে।
ওই ছাত্রীর পিতা জানান, রবিবার সকালে ত্রাণ দেবার কথা বলে মেম্বার ভোটার আইডি কার্ডের কপি ও ফোন নম্বর চায়। আমি কাজে যাই এবং স্ত্রী আইডি কার্ড ফটোকপি করতে বাজারে যায়। এ সুযোগে ননী গোপাল ঘরে ঢুকে মেয়ের হাতমুখ বেধে ধর্ষণ করে। বেলা ১২টার দিকে স্ত্রী ঘরে এসে দেখে মেয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করতে চেষ্টা করছে। কারণে জানতে চাইলে সে ধর্ষণের ঘটনা খুলে বলে, তখন পুলিশকে খবর দেই।
চিতলমারী থানার তদন্ত ওসি মো. ইকমার হোসনে বলেন, আসামি ধরতে পুলিশের একাধিক টিম মাঠে নেমেছে, পালিয়ে বেশিদিন থাকতে পারবে না। ইতিমধ্যে ধর্ষণের আলামত জব্দ ও সোমবার সকালে ওই শিক্ষার্থীকে ডাক্তারি পরীক্ষা করা হয়েছে।
চিতলমারী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পিযুষ কান্তি বলেন, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতা ও ইউপি সদস্যর নামে থানায় একটি ধর্ষণ মামলা হয়েছে। পুলিশ তদন্ত করছে। তদন্তে সত্য প্রমাণিত হোক এটা আমরা চাই। ননী গোপাল অপরাধী হলে অবশ্যই শাস্তি পাবেন। তবে, গ্রাম্য রাজনীতির কারণে তিনি যেন হয়রানির শিকার না হন।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*