Breaking News
Home / স্থানীয় সংবাদ / বাগেরহাটে হাত-পা বেঁধে নারী নির্যাতনের ঘটনায় ২টি মামলা

বাগেরহাটে হাত-পা বেঁধে নারী নির্যাতনের ঘটনায় ২টি মামলা

বাগেরহাট প্রতিনিধি
বাগেরহাটের ফকিরহাট উপজেলা সদরে কতিথ চুরির অভিযোগে মধ্যবয়সী এক নারীকে হাত-পা বেঁধে নির্যাতন করা হয়েছে। খবর পেয়ে ফকিরহাট থানা পুলিশ ওই নারীকে উদ্ধার করে পুলিশ হেফাজতে নিয়েছে। এ ঘটনায় ফকিরহাট থানায় পৃথক ২টি মামলা দায়ের হয়েছে। থানা পুলিশ সোমবার দুপুরে মমতাজ বেগম নামের ওই নারীকে চুরি মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে বাগেরহাট আদালতে প্রেরন করেছে। অপরদিকে মমতাজ বেগম কে মারপিটের অভিযোগে সে নিজে বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামী করে অপর একটি মামলা করেছেন। রবিবার দুপুরে উপজেলা সদরের ফকিরহাট বাজারে ওই নারীকে নির্যাতন করে বাজারের ব্যবসায়ী জাহিদ হোসেন ও তার সহযোগিরা। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, উপজেলা সদরের লিটন মার্কেটের একটি কাপড়ের দোকানে চুরির অভিযোগ এনে ওই নারীকে প্রকাশ্য জনসম্মুখে পিঠ মোড়া দিয়ে বেঁধে মারধর করা হয়। খবর পেয়ে ফকিরহাট থানা পুলিশ বাজার ব্যবসায়িদের হাত থেকে ওই নারীকে উদ্ধার করে পুলিশ হেফাজতে নেয়। জনসম্মুখে বার বার পা ধরে ওই নারী বলছিলেন- তিনি চুরি করেননি। কাপড় কিনতে এসেছেন। ফকিরহাট থানার ওসি (তদন্ত) মোঃ আলীমুজ্জামান সোমবার দুপুরে এ প্রতিবেদক কে বলেন, ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলার আলগী গ্রামের বাসিন্দা পরিচয়দানকারি ওই নারী চুরির কথা স্বিকার করায় দোকান মালিক রশিদ শেখ বাদী হয়ে প্রথমে একটি মামলা করেছেন। আর আইন হাতে তুলে নেয়া ও প্রকাশ্য জনসম্মুখে ওই নারীকে বেধে মারপিট করার অভিযোগ এনে অজ্ঞাত নামা আসামী করে নির্যাতিতা নারী মমতাজ বেগম বাদী হয়ে আরেকটি মামলা করেছেন। মমতাজ বেগম কে চুরির মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে প্রেরন করা হয়েছে। আর মমতাজ কে কারা নির্যাতন করেছে এবং আইন হাতে তুলে নিয়েছে সে বিষয়টিও তদন্ত করা হচ্ছে।

 

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*