Breaking News
Home / স্থানীয় সংবাদ / আজ আত্মসমর্পণকৃত সাবেক দস্যুদের হাতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তুলে দিবেন পুর্নবাসন সহায়তা সামগ্রী

আজ আত্মসমর্পণকৃত সাবেক দস্যুদের হাতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তুলে দিবেন পুর্নবাসন সহায়তা সামগ্রী

আজ ১ নভেম্বর ‘দস্যুমুক্ত সুন্দরবন দিবস’

এইচ এম দুলাল, মোংলা (বাগেরহাট) সংবাদদাতা
আজ ১ নভেম্বর দস্যুমুক্ত সুন্দরবন দিবস। ২০১৮ সালের এই দিনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সুন্দরবনকে দস্যুমুক্ত ঘোষণা করেন। এরপর থেকে র‌্যাবের আয়োজনে দিবসটি পালন হয়ে আসছে। দস্যুমুক্ত দিবসের তৃতীয় বর্ষপূর্তিতে সোমবার বাগেরহাটের রামপালে সুন্দরবনের আত্মসমর্পণকৃত সাবেক দস্যুদের পুর্নবাসন সহায়তা প্রদাণ করবেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।
রামপাল উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা মো: কবীর হোসেন জানান, সোমবার সকাল ১১টায় রামপাল উপজেলা পরিষদ চত্বরে র‌্যাব ফোর্সেস’র ব্যবস্থাপনা এই পুনর্বাসন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন খুলনা সিটি মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক, পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহার, পুলিশের মহাপরিচালক ড. বেনজির আহমেদ, র‌্যাবের মহাপরিচালক চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুন, র‌্যাব-৬ ও র‌্যাব-৮ এর অধিনায়ক, বাগেরহাট জেলাসহ স্থানীয় প্রশাসনের উর্ধতন কর্মকর্তারা। সেখানে আরো উপস্থিত থাকবেন পুর্নবাসন সহায়তাপ্রাপ্ত ৩২৬ জন সাবেক দস্যু। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল এ সকল আত্মসমর্পণকৃত সাবেক দুস্যদের হাতে তুলে দিবেন পুর্নবাসন সহায়তা সামগ্রী। পুর্নবাসন সহায়তা হিসেবে তাদেরকে দেয়া হবে বসত ঘর, দোকান ঘর, নৌকা-ট্রলার ও গবাদি পশু। পুর্নবাসন সহায়তার বসত ও দোকান ঘর সাবেক দস্যুদের পছন্দনীয় জায়গায় ইতিমধ্যে র‌্যাবের ব্যবস্থাপনা নির্মাণ সম্পন্ন হয়েছে। তাদের হাতে তুলে দেয়া হবে ঘর ও দোকানের চাবি। আর অনুষ্ঠানস্থলে প্রস্তুত রয়েছে নৌকা-ট্রলার, জাল ও গরু। যা আনুষ্ঠানিকভাবে আজ সোমবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আত্মসর্মণকতৃ সাবেক দস্যুদের হাতে তুলে দিবেন। এরমধ্যে ঘর পাচ্ছেন ১০২ জন, দোকান ৯০ জন ও ২০ জন পাচ্ছেন নৌকা-ট্রলার। আর বাকীরা পাচ্ছেন গবাদী পশু গরুসহ নানান সহায়তা।
১ নভেম্বর দস্যুমুক্ত সুন্দরবন দিবসের তৃতীয় বর্ষপূতি অনুষ্ঠান সফল করতে রামপালে চলছে নানা প্রস্তুতি। উপজেলা পরিষদ চত্বরের অনুষ্ঠানস্থলে র‌্যাবের ব্যাপক কার্যক্রম চলছে। সেখানে কাজের তদারকি করছেন র‌্যাবসহ স্থানীয় প্রশাসনের কর্মকর্তারা।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*