Breaking News
Home / স্থানীয় সংবাদ / মোটরসাইকেল এখন ‘মরণযান’

মোটরসাইকেল এখন ‘মরণযান’

সাইফুল্লাহ তারেক, আটরা গিলাতলা প্রতিনিধি ঃ নগরীতে সড়কে বিশৃঙ্খলা ও প্রাণহানির বড় কারণ বেপরোয়া মোটরসাইকেল। সড়ক দুর্ঘটনায় জড়িত যানবাহনের মধ্যে মোটরসাইকেল অন্যতম। মোটরসাইকেল এখন খুলনা মহানগরে ‘মরণযান’ হিসেবে পরিচিত। বড় গাড়ির চেয়ে মোটরসাইকেলের নিবন্ধন খুলনাতে অনেক বেশি। দেশের দক্ষিণাঞ্চলে দুর্গম এলাকায় যাত্রী পরিবহনের জন্য মোটরসাইকেলের ব্যবহার হয়ে আসছে বহু আগে থেকেই। এছাড়া মহাসড়কে চলাচলকারি এসব মোটরসাইকেলের চালকরা খুবই বেপরোয়া। সময় বাঁচাতে তারা কোনো নিয়ম না মেনে বেপরোয়াভাবেই গন্তব্যের উদ্দেশ্যে ছুটে চলে। এতে প্রতিনিয়ত ঘটছে দুর্ঘটনা। বিশেষ করে নগরির খানজাহান আলী থানার শিরোমনি বাইপাস সড়ক, খানজাহান আলী থানা রোড , কুয়েট রোড , গিলাতলা কেডিএ আবাসিক এলাকায় বেপরোয়া মোটরসাইকেল চালকদের দাপটে অতিষ্ঠ সাধারন মানুষ । থানা এলাকার অলিগলিতে মোটরসাইকেল চালকদের কারণে পথচারীরাও ত্যক্তবিরক্ত। বেশির ভাগ মোটরসাইকেল চালকই অন্য যানবাহনকে অতিক্রম যাওয়ার চেষ্টা করে সব সময়। সে ক্ষেত্রে তারা নিয়ম না মেনে উল্টোপথে, ফুটপাত দিয়েও বাহনটি চালিয়ে যায়। বাজাতে থাকে হর্ন। বেপরোয়া গতিতে চলাচলকারি এসব মোটরসাইকেল চালকরা কোনো কিছুকেই তোয়াক্কা করে না।দুর্ঘটনার কারণে মোটরসাইকেল এখন অনেক পরিবারের কাছে ‘প্রাণঘাতি ভয়ঙ্কর যান’ হিসেবে পরিচিত। মোটরসাইকেলের কারণে অনেক পরিবার থেকে হারিয়ে গেছে সম্ভাবনাময় সতেজ প্রাণ। তারপরেও পাড়া-মহল্লায় মোটরসাইকেলের সংখ্যা না কমে দিন দিন বাড়ছেই। ঈদ বা কোনো উৎসব এলে এ খবর আরও বেশি শোনা যায়। বাইক দুর্ঘটনার কারণে কেউ সারাজীবনের জন্য পঙ্গুত্ব বরণ করছে আবার কেউ বা পরপারে চলে গেছেন।প্রত্যক্ষদর্শী ও সাধারণ মানুষ জানায়, বেপরোয়া গতিই দুর্ঘটনার কারণ। অপ্রাপ্ত বয়সের কিশোরদের হাতে বাইক থাকায় প্রতিনিয়তই সড়ক ঘটছে দুর্ঘটনা। এসব কিশোর বাইকাররা সড়কের প্রত্যেকটা মানুষের জন্য আতঙ্ক।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*